ব্যাংককে যথাযোগ্য মর্যাদায় গণহত্যা দিবস পালিত

আজ ২৫ শে মার্চ ২০২১ পূর্বাহ্নে বাংলাদেশ দূতাবাস ব্যাংকক কর্তৃক যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের সাথে গণহত্যা দিবস পালিত হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারবর্গ এবং ২৫ মার্চের কালরাতে গণহত্যার শিকার ও মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে আত্মত্যাগকারী সকল শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়|

অনুষ্ঠানে থাইল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত জনাব মো: আব্দুল হাই তাঁর বক্তব্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ও মন্ত্রিপরিষদ কর্তৃক ২৫ মার্চকে জাতীয় গণহত্যা দিবস হিসাবে স্বীকৃতি দানের ঘটনাকে ঐতিহাসিক বলে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে নিরীহ বাঙালী জনগোষ্ঠীর উপর ইতিহাসের নৃশংসতম হত্যাকান্ড পরিচালনা করে বাঙালীর মুক্তির আন্দোলনকে স্তব্ধ করে দিতে চেয়েছিল। তিনি এই গণহত্যাকে বিংশ শতাব্দীর নিকৃষ্টতম গণহত্যাসমূহের একটি হিসেবে আখ্যা দেন এবং ২৫ শে মার্চ গণহত্যা দিবসের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি অর্জনের জন্য দূতাবাস কূটনৈতিক তপরতা অব্যাহত রাখবে বলে উল্লেখ করেন।  উল্লেখ্য যে, ৭১ এর গণহত্যাকে আন্তর্জাতিকীকরণের উদ্দেশ্যে কারিগরী সহযোগিতার লক্ষ্যে গত ৪ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে প্রধানমন্ত্রীর কম্বোডিয়া সফরকালে কম্বোডিয়ার গণহত্যা জাদুঘর ও বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘরের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ। গণহত্যা দিবস উপলক্ষ্যে মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বাণী সমূহ পাঠ করে শোনান দূতাবাসের কর্মকর্তাবৃন্দ|  অনুষ্ঠানে ১৯৭১ এর গণহত্যার উপর নির্মিত “৭১’র গণহত্যা ও বধ্যভূমি” শীর্ষক একটি বিশেষ প্রামান্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।